ইবির ছাত্রী হল! না খেলেও দিতে হবে টাকা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, ইবি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:27 AM, 16 October 2021

 

ঠিক এমনটাই নিয়ম করা হয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হলগুলোতে। সকালের খাবার ব্যাতীত ৩০ মিল খাবার গ্রহন না করলেও ৩০ মিলের সমপরিমাণ অর্থ পরিশোধ করতে হবে ছাত্রীদের। কতৃপক্ষের এমন সিদ্ধতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ছাত্রীরা যাতে হলে নিয়মিত খাবার গ্রহণ করে তাই এই নিয়ম করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। আজ শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) থেকে চালু করা হবে এই নিয়ম।

আবাসিক হলগুলোর খাবারের মান নিয়েও শিক্ষার্থীদের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। অভিযোগ আছে হলগুলোতে পঁচা-বাসী খাবার দেওয়া হয় শিক্ষার্থীদের।। এতে অনেক সময় শিক্ষার্থীরা পেটের সমস্যাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। তাই হলের চেয়ে তুলনামূলক খরচ বেশি হলেও বিভিন্ন হোটেলে খাবার গ্রহণ করেন ছাত্রীরা। বর্তমানে হোটেল মালিকরা খাবারের মূল্য আরো বাড়িয়েছে। এতে শিক্ষার্থীরা পুরো সন্তুষ্ট না হলেও দুধের সাধ ঘোলে মেটানোর মত হয়। আবার কেউ হলের কক্ষে রান্না করে খান। এতে খাবারের মানও সন্তুষ্টজনক হয়, খরচও বাঁচে। কিন্ত এখন সেই সুযোগ শিক্ষার্থীদের জন্য সংকীর্ণ করে দিয়েছে কতৃপক্ষ। মেসের মত করে ছাত্রী হলগুলোতে খাবার (মিল) গ্রহণের ব্যাপারে নতুন নিয়ম চালু করেছে। শিক্ষার্থীদের সকালের খাবার ব্যতীত অন্তত ৩০ মিল গ্রহণ করতে হবে। কেনো ছাত্রী ৩০ মিল গ্রহণ না করলেও টাকা পরিশোধ করতে হবে।

দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের আবাসিক শিক্ষার্থী নাজিফা তাসনিম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে এসেও এমন সিদ্ধান্ত খুবই দুঃখ জনক। খাওয়ার ব্যাপারে মেসগুলোতে বাধ্যবাধ্যকতা থাকে। কিন্তু হলে কখনো এমন বাধ্যবাধ্যকতা ছিল না। হলের ডায়নিংয়ের খাবারের মান খারাপ তাই মাঝে মাঝে বাইরে থেকে খাই। রাতে বাইরে বের হওয়ার সুযোগ না থাকায় রান্না করে খাই। মিলের ব্যাপারে বাধ্যবাধকতা হল কর্তৃপক্ষের হটকারী সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হোক নতুবা খাবারের মান বৃদ্ধি করা হোক।’

আপনার মতামত লিখুন :