এবারেও প্রক্টরের আশ্বাস, রাবিতে আন্দোলন স্থগিত

উমর ফারুক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৩৮ PM, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১

২০১৯ সাল থেকে আমরা পরীক্ষা নিয়ে আটকে আছি, ২০ সাল পুরোটাই গেলো করোনায়। আবার এবছর পরীক্ষা চালু করে মাত্র দুটো পরীক্ষা দিয়েই আবার বন্ধ করে দিলো। এরকম কেনও হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সাত কলেজের দাবি মেনে নিলো, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা চলমান রেখেছে তাহলে আমরা কেনও বৈষম্য শিকার হবো। এভাবেই স্থগিত হওয়া পরীক্ষা চলমান রাখার দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড় সাড়ে ১১টায় প্যারিস রোডে এক দফা এক দাবি, স্থগিত হওয়া পরীক্ষা চালু চাই, শিক্ষা নিয়ে প্রহসন চলবে না, ১৯ এর সকল পরীক্ষা চালু চাই প্ল্যাকার্ড হাতে এসব দাবি জানান।
শিক্ষার্থীরা আক্ষেপ করে বলেন, আমরা পরীক্ষা গুলো হলে চাকরীর আবেদন করতে পারতাম, বাবা মার পাশে দাড়াতল পারতাম। তিন বছর ধরে পরীক্ষা আটকে আছে। আমরা চাই যেবও দ্রুত সময়ের মাঝে চলমান পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রীর কাছে দৃষ্টি আকর্ষণ করে শিক্ষার্থীরা বলেন, স্বাধীন দেশে কেনও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েও কেনও বৈষম্যের শিকার হবো। আমাদের আপনি বাঁচান। পরীক্ষাগুলো দিয়ে আমরা মুক্ত হতে চাই।
কর্মসূচিতে এসে তোপের মুখে পড়েন রাবি প্রক্টর ও ছাত্র উপদেষ্টা (অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রাপ্ত) অধ্যাপক লুৎফর রহমান।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রক্টর বলেন, তোমরা জানো দেশের একটি বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরী হয়েছে।  এই পরিস্থিতিতে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণার পর আমরা সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে চলমান পরীক্ষাগুলো স্থগিত করেছি।তোমরা যদি এই মানববন্ধন নাও করতে তাহলেও আমি তোমাদের পরীক্ষার ব্যাপারে প্রশাসনের সাথে কথা বলতাম। তোমাদের সামনে থাকা পরীক্ষা নেয়ার ব্যাপারে আমি উপাচার্য স্যারের সাথে কথা বলব।
এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর লুৎফর রহমানের আশ্বাসে ৭২ ঘন্টা আল্টিমেটামে আবারো আন্দোলন স্থগিত করেছে শিক্ষার্থীরা।
উল্লেখ্য,সারা দেশের করোনা পরিস্থির কথা বিবেচনা করে সরকার আগামী ২৪মে পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলমান ও আসন্ন সকল প্রকার পরীক্ষা স্থগিত করেছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর চলমান ও আসন্ন সকল প্রকার পরীক্ষা স্থগিত করার নির্দেশ দিয়েছেন উপাচার্য প্রফেসর এম আবদুস সোবহান।

আপনার মতামত লিখুন :