করোনা টিকা নিতে সবচেয়ে বেশী আবেদন করেছে রাবি শিক্ষার্থীরা

উমর ফারুক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:১৮ PM, ২৪ জুন ২০২১

মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে টানা বন্ধ রয়েছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ দিন ধরে বন্ধ থাকা দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে সরাসরি ক্লাস শুরু ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল খুলতে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের টিকার আওতায় আনার নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।
এর প্রেক্ষিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিক্ষার্থীদের করোনা টিকা নিতে গত ১০মে নিবন্ধন প্রক্রিয়া গত শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শেষ হয় গত ২৭ মে পর্যন্ত চলে আবেদন প্রক্রিয়া। যেখানে মোট ২৫ হাজার ২৫৪ শিক্ষার্থীর তালিকা দেওয়া হয়েছে ইউজিসির কাছে। যেখানে আবেদনের দিক থেকে শীর্ষে অবস্থান করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

জানা গেছে, দেশের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত ৩৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে করোনার টিকার জন্য ১ লাখ ৩ হাজার ১৫২ জন আবাসিক শিক্ষার্থীর তালিকা পাঠানো হয়েছে বাংলাদেশ  বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি)। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্য থেকে এ টিকার জন্য সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থীর তালিকা দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। আর দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

জানা গেছে, বর্তমানে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে মোট ২২০টি আবাসিক হল রয়েছে। এগুলোতে আবাসিক শিক্ষার্থী প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার।
সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী, দেশের ৩৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে গত ৩১ মে পর্যন্ত মোট এক লাখের বেশি আবাসিক শিক্ষার্থীর তালিকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এমআইএসে দেওয়া হয়েছে। করোনার টিকার নিবন্ধনসংক্রান্ত কাজসহ স্বাস্থ্যের তথ্যসংক্রান্ত বিষয়ে জড়িত এমআইএস।

ইউজিসি সূত্র জানায়, সবচেয়ে বেশি তালিকা দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫ হাজার ২৫৪ শিক্ষার্থীর তালিকা দেওয়া হয়েছে।
ইউজিসি সূত্র জানিয়েছে, তাদের লক্ষ্য হলো সরকারি-বেসরকারি সব শিক্ষার্থীকেই করোনার টিকার আওতায় আনা। তবে আবাসিক হলগুলোতে যেহেতু শিক্ষার্থীরা একসঙ্গে বেশি করে থাকেন, সে জন্য প্রথমে সেসব শিক্ষার্থীকে টিকার আওতায় আনতে চায় তারা। কারণ হিসেবে তারা বলছে, টিকা ছাড়া আবাসিক হলগুলো খোলা হলে করোনার ঝুঁকি বেশি।

আপনার মতামত লিখুন :