কারো মুখের কথায় নিয়োগ স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন!

উমর ফারুক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৩০ PM, ৩১ মে ২০২১

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও ১৩৮ জনকে নিয়োগ দিয়ে দেশে তুমুল সমালোচনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর এম আবদুস সোবহান। ঘটনাটিকে ঘিরে তৈরি হয়েছে রীতিমতো লঙ্কাকান্ড।

তবে বিদায়ী ভিসির দেয়া নিয়োগপ্রাপ্তদের যোগদান স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

সাবেক ভিসির দেয়া এ্যাডহকে নিয়োগপ্রাপ্তরা কেনও চাকরীতে যোগদান করতে পারবে না এবং তাদের যোগদানের স্থগিতাদেশ কোন ডকুমেন্টস রয়েছে কিনা তা ক্ষতিয়ে দেখতে রুটিন দায়িত্বে থাকা ভিসি প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, উপ-উপাচার্য চৌধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়াসহ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের অবরুদ্ধ করে রেখেছেন সেই নিয়োগপ্রাপ্ত ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। আজ সোমবার (৩১ মে) বেলা ১১টা থেকে ভিসির সম্মেলন কক্ষে অবরুদ্ধ করার ঘটনা ঘটে যা এখনো চলছে।

নিয়োগপ্রাপ্তদের দাবি, অবরুদ্ধ করে রাখার সময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে ডকুমেন্টস চাইলে স্থগিতাদেশ এর কোন ডকুমেন্টস দেখাতে পারেন নি। প্রশাসন কারো মুখের কথাতেই যোগদান স্থগিত করেছে। এসময় নিয়োগপ্রাপ্তরা স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানায়।

সেসময় নিয়োগপ্রাপ্তরা স্থগিতাদেশ কার আদেশে হয়েছে বলে জানতে চান, সেই প্রশ্নের জবাবে কোন কথা বলেননি রুটিন দায়িত্ব পালনকারী ভিসি ড. আনন্দ কুমার সাহা।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাহফুজ আল আমিন ক্যাম্পাস লাইভকে বলেন, আমরা আমাদের যোগদানের বিষয় নিয়ে ভিসির কাছে এসেছি। তবে কেনও আমাদের যোগদান স্থগিত করা হয়েছে তার কোন ডকুমেন্টস দেখাতে পারেনি। তাছাড়া রুটিন দায়িত্বে থাকা ভিসি এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলেন নি। আমরা এখনো ভিসির রুমেই অবস্থান করছি।

এদিকে, গত ৬মে বিদায়ী ভিসি প্রফেসর আবদুস সোবহান নিষেধাজ্ঞা থাকা স্বত্বেও কেনও নিয়োগ দেয়া হলো তা ক্ষতিয়ে দেখতে ইতিমধ্যে তদন্ত শেষ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্পষ্টতই আইন ও প্রশাসনিক রীতি-নীতি ভেঙেছেন। এ নিয়োগ দিতে গিয়ে তিনি অনিয়মের আশ্রয় নিয়েেছেন। নিয়োগের ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করেছে তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

এদিকে, বিদায়ী ভিসির দেয়া চাকরীতে নিয়োগপ্রাপ্তদের যোগদান স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
এরপর গত ১৯ মে নিয়োগপ্রাপ্ত ১৩৮ জন শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিজ কর্মস্থলে যোগদান করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :