ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ক্যাম্পাস
  4. খেলা
  5. জবস
  6. জাতীয়
  7. তথ্যপ্রযুক্তি
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. সারাদেশ
  13. সাহিত্য
  14. স্বাস্থ্য

কুবিতে কর্মচারীদের মানববন্ধন

প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, কুবি
নভেম্বর ১৫, ২০২২ ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন প্রণীত অভিন্ন নীতিমালা প্রতিহত এবং ৯ম পে-স্কেল প্রদান ও পে-স্কেল বায়স্তবায়নের আগ পর্যন্ত ৫০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা প্রদানের দাবিতে মানববন্ধন করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীরা।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) সকাল ১১টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদ ও ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতির ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বর্তমান বাজার অনুযায়ী আমরা আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল৷ আমাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। মঞ্জুরি কমিশন অভিন্ন নীতিমালার নামে প্রহসন করছে। মানববন্ধন ছাড়া কর্মচারীদের কোন দাবি পূরণ হয়নি। আমরা পে-কমিশনারকে আহ্বান করব ৯ম স্কেল অনুসারে আমাদের যেন বেতন প্রদান করা হয়। এসময় তারা আন্তবিশ্ববিদ্যালয় ফেডারেশন যখন যে কর্মসূচি দিবে সে অনুযায়ী কর্মসূচি পালন করার কথা জানান।

কর্মচারী সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছি। আমরা আজকে রাস্তায় নেমেছি ক্ষুধার জ্বালায়৷ সকল কিছুর দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু আমাদের বেতন স্কেল কেন বৃদ্ধি পাচ্ছে না? আমাদের সাথে তারা প্রতারণা করেছে। আমাদেরকে দেখিয়েছে কলা আর দিয়েছে মুলা৷ সেটা আমরা কোনভাবে মানতে পারি না। কেন আজকে আমাদের এখানে মানববন্ধন করতে হচ্ছে, সেটার জবাব কে দিবে? আমাদের দাবি না মানলে কোন দপ্তরে কাজ হবে না, দরকার হলে সকল দপ্তরে তালা ঝুলিয়ে দিব।

৩য় শ্রেণি কর্মচারী পরিষদের সভাপতি দীপক চন্দ্র মজুমদার বলেন, মঞ্জুরি কমিশন কেন আমাদেরকে সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করছে, সেটা আমরা বুঝতে পারছি না। আমার মনে হচ্ছে আমাদের আরও মানববন্ধন করতে হবে। আমাদের সাথে অনেক বৈষম্য করা হচ্ছে৷ তবুও আমি আবার প্রশাসনের সাথে কথা বলব। না হয় আমরা আরও তীব্র আন্দোলনে যাবো। ৯ম পে স্কেল এটা শুধুমাত্র কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারীদের দাবি নয়, এটা সকল বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারীদের দাবি।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ, ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. মহসিন, ৪র্থ শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমানসহ কর্মচারীরা৷

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস