কুবিতে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বহিরাগতদের অবাধ প্রবেশ

নাজমুল সবুজ, কুবি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:৪২ PM, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনা ভাইরাসের বিদ্যমান পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি বিবেচনা করে ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধসহ নয় দফা নির্দেশনা দেয় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বে বহিরাগতরা অবাধেই ক্যাম্পাসে প্রবেশ করছে, এতে ঝুঁকিতে পড়ছে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি, নিরাপত্তা শাখার যথাযথ নজরদারির অভাবেই বহিরাগতরা অবাধে প্রবেশ করছে বলে অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের।

সরেজমিনে দেখা যায়, নিষেধাজ্ঞা শুরুর দিন ৯ সেপ্টেম্বর ও ১০ সেপ্টেম্বর ক্যাম্পাসে অবাধে বহিরাগতরা প্রবেশ করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার, কেন্দ্রীয় মাঠ, মুক্তমঞ্চসহ ক্যাম্পাসের সড়কগুলোতে অসংখ্য বহিরাগতদের দেখা যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে নিরাপত্তা প্রহরীদের কোনোরূপ বাঁধা ছাড়াই এসব বহিরাগত ভিতরে প্রবেশ করছে। এছাড়াও বহিরাগত বাইকারদের বেপরোয়া গতিতে দূর্ঘটনা ঘটার শঙ্কাও থাকে।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, করোনার সময় আমাদের পরীক্ষা দীর্ঘদিন বন্ধ ছিলো, অনেক প্রতিক্ষার পর আমাদের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ক্যাম্পাসে গণজমায়েত রোধে শুধু স্নাতকোত্তর এবং স্নাতকের চতুর্থ ব্যাচের পরীক্ষা হচ্ছে। সেখানে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধ থাকার পরও তাদের অবাধে প্রবেশে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে। প্রশাসন যখন বহিরাগত প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, তখন এই নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।

বহিরাগতদের অবাধ প্রবেশের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগে থেকেই আমরা বহিরাগত প্রবেশরোধে নির্দেশনা দিয়েছি, সিকিউরিটি অফিসারের সাথে কথা বলেছি। গতকালও সিকিউরিটি অফিসার আমাকে আশ্বস্ত করেছে যে ফটকে প্রহরীর সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে এবং বহিরাগতদের প্রবেশরোধে কঠোর অবস্থান থাকবে। আমি আবার কথা বলবো তাদের সাথে এবং নিজেই মনিটরং করবো।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার সহকারী রেজিস্ট্রার সাদেক হোসেন মজুমদার বলেন, আমি বিষয়টি দেখতেছি।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, বহিরাগতদের প্রবেশরোধে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া আছে। এরপরও বহিরাগতদের প্রবেশরোধে আমি মনিটরিং করবো।

উল্লেখ্য, পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে অযথা আড্ডা ও গণজমায়েতে না করার নির্দেশনা ও ৯ সেপ্টেম্বর হতে ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞাসহ বেশ কয়েকটি নির্দেশনা জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো: দলিলুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনাগুলো দেওয়া হয়।

আপনার মতামত লিখুন :