গবি সাইবার ড্রিল টিমকে ভিসির সংবর্ধনা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, গবি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:২৮ PM, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) সাইবার ড্রিল টিমকে সংবর্ধনা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) ডা. লাইলা পারভিন বানু।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) ভিসি কার্যালয়ে সংবর্ধনা জানানো হয়। সেখানে আরো উপস্থিত ছিলেন ভৌত ও গাণিতিক বিজ্ঞান অনুষদের নতুন ডীন জনাব অধ্যাপক মো. করম নেওয়াজ। তবে করোনা মহামারীর কারণে উপস্থিত না থাকতে পারলেও সকল বিভাগীয় প্রধান শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

সাইবার ড্রিল গবি টিমকে উৎসাহ প্রদান করে এবং তাদেরকে আরও ভালো কাজ করার প্রেরণা দিয়ে উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) ডা. লাইলা পারভিন বানু বলেন, তোমাদেরকে প্রশাসনিক ভাবে পরিপূর্ন সহায়তা করা হবে এবং প্রয়োজনীয় সকল জিনিসপত্র দেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের নতুন ও অভিজ্ঞ ল্যাব শিক্ষক নিয়োগ প্রদান করা হবে তোমাদের নতুন নতুন আবিষ্কারের সাহায্যের জন্য।

এ সাইবার ড্রিলে যোগ দেওয়ার জন্য ২৮৩টি বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রেশন করে এবং মোট ১১০৮ জন শিক্ষার্থী সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে। দেশের সকল পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় এতে অংশ নেয়।

এ ড্রিলে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয় সর্বমোট ৪০০০ পয়েন্টের মধ্যে ২০৫০ অর্জন করে ২৮তম স্থান লাভ করে। প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের সাইবার সিকিউরিটি, নেটওয়ার্কিং, ইমেজ, ওয়েব হ্যাকিং, ব্লকচেইন সম্পর্কিত মোট ৪৭টি সমস্যার সমাধান করতে হয়।

গবি সাইবার ড্রিল টিমের সদস্যরা হলেন কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইন্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী- মুঞ্জর হাসান (দলনেতা), মো. রাকিবুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেন।

আলমগীর হোসেন জানান, কন্টেস্টের শেষ সময় পর্যন্ত আমরা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়কে যতটা সম্ভব র‍্যাংকিংয়ে উপরের দিকে রাখতে চেষ্টা করেছি। সাইবার ড্রিলে অংশগ্রহণ করে আরো বেশি সাইবার সিকিউরিটি, হ্যাকিং ও হ্যাকিং ঠেকানো শিখতে পেরেছি। নিজেদের যাচাই করতে পেরেছি। যে সকল ছাত্র-ছাত্রীরা সাইবার সিকিউরিটিতে আগ্রহী এবং শিখতে ইচ্ছুক তাদের প্রতি বছর এই কন্টেস্টে অংশগ্রহণ করা উচিত।

দলনেতা মুঞ্জর হাসান আল্লাহর শুকরিয়া জ্ঞাপন করে জানান, আমি আমার টিমের সবাইকে নিয়ে অনেক আনন্দিত। ভাবতে পারিনি র‍্যাংকিংয়ে ৩০ এর মধ্যে থাকতে পারবো। ড্রিলে দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮৩টি টিম অংশ নেয়। ১ম দিনে আমরা ১০০ এর পরে ছিলাম। ২য় এবং শেষ দিনে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে গণ বিশ্ববিদ্যালয়কে এমন একটা পজিশনে রাখতে পেরে আমরা গর্বিত। ল্যাবের ইকুইপমেন্টের অনেক সল্পতা থাকলেও বিভাগীয় শিক্ষকদের পরামর্শ সবসময় পেয়েছি।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে আহবান থাকবে, সিএসই বিভাগে পর্যাপ্ত ল্যাব ইকুইপমেন্ট সরবরাহ করা। যাতে দ্রুত গতিতে শিক্ষার্থীরা কাজ করতে পারে এবং প্রোগ্রামিং রিলেটেড সকল শাখায় গণ বিশ্ববিদ্যালয় অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো সামনের দিকে আরও এগিয়ে যেতে পারে।

আয়োজক সংস্থা বাংলাদেশ কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম (বিজিডি ই-গভ সার্ট) সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও সাইবার নিরাপত্তার ধারণা দেওয়ার জন্য বিজিডি ই-গভ সার্ট এই সাইবার ড্রিলের আয়োজন করে। দেশের সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮-এর বিধান অনুযায়ী এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সরকারের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরিকাঠামোগুলো তথ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বিজিডি ই-গভ সার্ট।

 

আপনার মতামত লিখুন :