চোখে মরিচের গুঁড়ো ছিটিয়ে কুবি শিক্ষার্থীকে মহাসড়কে ফেলে গেলো ছিনতাইকারীরা

কুবি প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:১১ AM, ১০ অক্টোবর ২০২১

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মাইক্রোবাসে ঢাকায় যাওয়ার পথে যাত্রীবেশে থাকা ছিনতাইকারীদের হাতে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। শুক্রবার (৮ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ঐ শিক্ষার্থীর চোখে মরিচের গুঁড়ো দিয়ে পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড সংলগ্ন হোটেল নুরজাহানের সাসনে ফেলে যায় ছিনতাইকারীরা। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ আহমেদ সুমন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সুমন বলেন, ‘শুক্রবার জরুরী প্রয়োজনে আমি কুমিল্লা থেকে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে কুমিল্লার পদুয়ারবাজার থেকে একটি মাইক্রোবাসে উঠি। মাইক্রোবাসটি কোটবাড়ি বিশ্বরোড অতিক্রম করে আবার চট্টগ্রাম অভিমুখী চলতে শুরু করলেই গাড়িতে থাকা যাত্রীবেশী পাঁচজন লোক আমার হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করে বলে আমি যেন বাড়িতে ফোন করে ১ লাখ টাকা দিতে বলি।’

সুমন আরও বলেন, ‘নির্যাতনের একপর্যায়ে আমার সাথে থাকা মোবাইল ফোন নিয়ে যায় তারা। আর আমার মানিব্যাগে ১০ হাজার টাকা পেয়ে আমাকে পদুয়ার বাজারে নূরজাহান রেস্টুরেন্টের পাশে ফেলে রেখে যায়। ফেলে রাখার আগে আমার দুই চোখে মরিচের গুঁড়ো মেখে দেয় তারা।’

এ ঘটনার পর সুমন চোখে পানি দিয়ে একটি অটোতে করে বাসায় চলে যান। বাসায় গিয়ে ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে সদর দক্ষিণ উপজেলা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। বর্তমানে সুমন ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি আমাদের থানার এরিয়ায়। লিখিত অভিযোগ দিলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো।

এবিষয়ে কুমিল্লা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) প্রশান্ত পাল বলেন, থানায় অভিযোগ দায়ের করলে আমি অফিসার ইনচার্জের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নিবো।

এবিষয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী লিখিত অভিযোগ দিলে আমরা পুলিশ প্রশাসন কে বলে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

আপনার মতামত লিখুন :