মধ্যরাতের হামলায় রক্তাক্ত বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৩২ AM, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর রাতের আঁধারে মেসে ঢুকে সশস্ত্র হামলার চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গত রাত ১টার দিকে নগরীর রূপাতলি হাউজিংয়ে শিক্ষার্থীদের মেসে মেসে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। হামলায় গুরুতর আহত শিক্ষার্থীদের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পরিচয় পাওয়া আহত শিক্ষার্থীরা হলেন- বিশ্ববদ্যিালয়ের মার্কেটিং বিভাগের শেখ সজিব, রসায়ন বিভাগের শাহেদ পারভেজ তানিম ও সােহানুর সােহান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের আলীম সালেহী, গণিত বিভাগের রাজিব ও ফাহিম , মুক্তিকা ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের ইকবাল হাসান ও নুরুল্লা সিদ্দিকী, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের জয় গুরুতর আহত হন।
হামলায় আহত শিক্ষার্থীরা জানান, অজ্ঞাত সংঘবদ্ধ প্রায় ৫০ জন লােক রড, লােহার পাইপ, রামদা নিয়ে তাদের হামলা করে। তারা বলেন, গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের দুই শিক্ষার্থী সজল ও ফারজানা রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডে বিআরটিসির কাউন্টারে যান। সেখানে কাউন্টার কর্মচারী রফিকের সাথে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে রফিক সজলকে ছুরিকাঘাত করে। লাঞ্ছিত করা হয় ফারজানাকেও।
এ খবর শুনে রূপাতলী এলাকায় সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে অভিযুক্ত বাস কাউন্টার কর্মচারীকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনার জেরে পরে রাতের আঁধারে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।

হামলার শিকার হওয়া এক শিক্ষার্থী জানান, বাস কাউন্টারের ভাড়াটে গুণ্ডারা আমাদের উপর হামলা চালিয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। তাদের সবাইকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী তৌফিকুল সজল ও ফারজানা আক্তার বাড়ি যাবার জন্য বিআরটিসি বাস কাউন্টারে যায়। সেখানে বাস স্টাফের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে সজলকে ছুরিকাঘাত করে রফিক। এছাড়া ফারজানাকে লাঞ্ছিত করা হয়। পরে ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা।
এদিকে গভীর রাতে শিক্ষার্থীদের হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। হামলার ঘটনার পর বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর সুব্রত কুমার দাস দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, আমাদের নিরপরাধ শিক্ষার্থীদের উপর আমানবিক হামলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। হামলার ঘটনার শুনার পর পরই থেকেই প্রক্টরিয়াল বডি শিক্ষার্থীদের খোঁজ খবর নিচ্ছে।
হঠাৎ শিক্ষার্থীদের উপর কারা এবং কেন এ হামলা চালাল? জানতে চাইলে ববি প্রক্টর বলেন, এখন পর্যন্ত এ হামলার মোটিভ সম্পর্কে জানা যায়নি। উপাচার্য স্যার বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন। তিনি আলোচনা করে শিক্ষার্থীদের হামলার বিষয়ে পদক্ষেপ নেবেন।

 

 

আপনার মতামত লিখুন :