মাদারীপুরের রাজৈরে আ.লীগের যৌথ সভায় আবারও দুই গ্রুপের হাতাহাতির ঘটনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৫৪ PM, ০৫ মার্চ ২০২১

মাদারীপুরের রাজৈরে বঙ্গবন্ধুর  ৭ মার্চের ভাষন, ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন  ও ২৬ শে মার্চ  মহান স্বাধীনতা দিবস  উপলক্ষ্যে রাজৈর উপজেলা আ.লীগ ও   ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন এবং  সকল সহযোগী সংগঠনের এক যৌথসভা আয়োজন করা হয়েছিলো
(৪ মার্চ) বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় রাজৈর  বেপারীপাড়া মোড়স্থ দলীয় কার্যালয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরদের তথ্য মতে,
সভার একপর্যায়ে বক্তব্য দেওয়া কে কেন্দ্র করে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিন খান ও জাতীয় শ্রমীক লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাহার মধ্যে তর্কবিতর্ক শুরু হয়।এরি  জেরে  অাঃ লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শাজাহান খান এমপি অনুসারী ও অাঃ লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অা ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম এর  সর্মথকদের  বাকবিতন্ডা   হাতাহাতি ও ধাক্কা ধাক্কির  ঘটনা ঘটেছে। পরে অবশ্য উপস্থিত সিনিয়র নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে বিষয়টি সমাধান হয়। সভা শেষ হবার  ঘন্টাখানিক পরে বদরপাশা ইউনিয়নের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী জিয়া মাতুব্বর ও এমদাদুল হক পাট্টুর সর্মথকদের মাঝে মারামারির ঘটনাও ঘটে। এমতা অবস্থায়  পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

রাজৈর উপজেলা আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিন খান জানান,এটি একটি পরিকল্পিত হামলা।

তিনি আরোও বলেন, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বক্তব্য দিতে গেলে শ্রমীক সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাহা বাধা দিলে এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলা  জাতীয় শ্রমীক লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাহা  অভিযোগ করে জানান, আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের গঠনতন্ত্র বিরোধী ও উসকানিমূলক আচরনের কারনে এ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে,

তিনি আরও জানান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদককে   গঠনতন্ত্র মেনে সভা পরিচালনা করতে বললে,
তিনি ( ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিন খান)  বলেন সবসময় গঠনতন্ত্র মেনে সভা করা যায় না, তার ভাবাপূর্ণ দুইজনকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ করে দেন  মুলত এঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়।

এবিষয়ে রাজৈর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মো শাদি জানান, ঘটনার সংবাদ জানার  সাথে সাথে পুলিশ প্রেরণ করি ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনি।

আপনার মতামত লিখুন :