মাদারীপুরে নতুন জীবন পেলো ৩৭টি “সন্ধি কচ্ছপ”


  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৪৯ PM, ৩০ জানুয়ারী ২০২১

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি থেকে ৩৭টি বিপন্ন প্রজাতির সন্ধি কচ্ছপ উদ্ধার করা হয়েছে।শনিবার (৩০জানুয়ারি) সকালে রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি থেকে ওই কচ্ছপগুলো উদ্ধার করে বন বিভাগ খুলনার বণ্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ।

এসময় ভবতশ সরকার (৩৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

খুলনার বণ্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বন্যপ্রাণী কর্মকর্তা
তম্নয় আচার্য্য জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কদমবাড়িতে অভিযান চালানো হয়।মাদরীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি থেকে ক্রেতা সেজে আমরা সকালে ভবতশ সরকার(৩৮)এর  বাড়িতে গিয়ে কচ্ছপ কিনতে যাই, তখন তার কাছ থেকে ৩৭টি কচ্ছপ পাই (যার ওজন প্রায় ৬০ কেজি), ৮৭টি কচ্ছপের খোলশ ও ৫ টি ড্রাম ও আনুষাঙ্গিক সরঞ্জামাদি উদ্বার করা হয়।

পরে কচ্ছপ গুলোকে রাজৈর উপজেলা পরিষদের ২টি ও থানার ১টি  পুকুরে উদ্ধারকৃত কচ্ছপগুলো অবমুক্ত করা হয়।

ওই প্রজাতির কচ্ছপ শিকার, সংরক্ষণ ও বিক্রি করা বন্যপ্রাণী আইনে সম্পূর্ণ নিষেধ। এ কারণে রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুজ্জামান ভবতশ সরকারকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

তন্ময় বলেন, সাধারণত বিল, হাওড়, বাওড় ও ছোটখাটো জলাশয়ে ওই প্রজাতির কচ্ছপের বসবাস। মুনাফার আশায় এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী সেগুলো শিকার করে বিক্রি করেন। এ কারণে ধীরে ধীরে কচ্ছপের ওই প্রজাতিটি ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :