শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিন নয় বাসায় বিষ পাঠিয়ে দিন – রাবি প্রফেসর

উমর ফারুক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:৪৪ PM, ২৪ মে ২০২১

১৭মার্চ ২০২০! দেশে করোনা সংক্রমণের কারণে একযোগে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার।সেই থেকে দীর্ঘ ৪৩৫ দিন ধরে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। করেনার মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ধাপে-ধাপে বাড়ানো হয়েছে ছুটি। যার ফলশ্রুতিতে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে দেশের লাখ- লাখ শিক্ষার্থী। ক্যারিয়ার নিয়ে হুমকির মুখে পরতে যাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। ভাবনা ও হতাশায় পার করছে দিনগুলো।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার নিয়ে আন্দোলনে নামলে গত ফেব্রুয়ারিতে ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হয় এবং সেই সাথে বলা হয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল ১৭ মে ও ২৪ মে থেকে সরাসরি ক্লাস চালু করার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর মাঝে শ্রেণীকক্ষ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন রাখতে বলা হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষকে।
কিন্তু সে আশায় গুঁড়ে বালি ফের ৩০ মে পর্যন্ত বাড়ানো হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি।
তবে লকডাউনের মধ্যেও শপিংমল, মার্কেট, অফিসসহ গণপরিবহণ খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি বৃদ্ধি করা হয়েছে।
এদিকে দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যতিত সকল কিছু চলামন রয়েছে শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ কেন এমন ক্ষোভ প্রকাশ ও শিক্ষার্থীদের মানসিকভাবে বিপর্যস্তের কথা উল্লেখ করে
করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিসারিজ বিভাগের প্রফেসর মাহবুবুর রহমান।
পোস্টটি তুলে ধরা হলো:

শিক্ষা সংশ্লিষ্ট মাননীয় কর্তৃপক্ষবৃন্দ !

আপনাদের উপর ছাত্রদের আস্থার বহিঃপ্রকাশ দেখছেন কি ! কতটা অসহায় হলে ছাত্রদের মুখে এমন স্লোগান আসে ? ছাত্ররা মানসিকভাবে কতটা বিপর্যস্ত তা বোঝার ক্ষমতা কি আপনাদের নাই ? আপনাদের কবে বোঝার সময় হবে…এইভাবে আর কত ? আর কি বললে/করলে ওদের উপর আপনাদের একটু দয়া হবে ?

কোন কমিটি (অতিশয় মহাবিজ্ঞ…সবই এনালগ) কি কি বোঝায়,যুক্তি দেয় সেই বুঝে, যুক্তিতে জাতিকে শিক্ষায় পঙ্গু করবেন না প্লীজ ! এভাবে ছাত্রদের জীবন থেকে মূল্যবান সময় নষ্ট করবেন না প্লীজ ! ওদের জীবনকে আর অভিশপ্ত করে তুলবেন না প্লীজ ! শিক্ষা ছাত্রদের জীবনে আশীর্বাদ…ওদের জীবনের আশীর্বাদকে অভিশাপে পরিনত করবেন না প্লীজ !

প্লীজ…এবার সব কিছুর মতো স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও খুলে দিন ! যাদের পরীক্ষা আটকে আছে তাদের পরীক্ষা শেষ করে চলে যাবার সুযোগ দিন…যাদের ক্লাস শেষ হয়েছে তাদের পরীক্ষা শুরু করার সুযোগ দিন !

প্রফেসর মাহবুবুর রহমান আরো একটি স্ট্যাটাসে উল্লেখ করে বলেন, “ফেরিঘাটে,বাজারে,বিনোদন কেন্দ্রে হাজার হাজার মানুষ গায়ে গায়ে ঘেঁসে চলাফেরা করলে করোনা ছড়ায় না, করোনা ছড়াবে ১০০ জন ছাত্র একসাথে ক্লাস করলে” !

এনালগ বিজ্ঞদের রাবিশ যুক্তি…!!??
ভবিষ্যৎ জেনারেশনের জন্য এমন বিজ্ঞরা আশীর্বাদ না অভিশাপ ??!!প্রফেসরের স্ট্যাটাস

এদিকে, দীর্ঘ দিন ধরে বন্ধ থাকা বিশ্ববিদ্যালয় গুলো খুলতে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন কর্মসূচী করেছে শিক্ষার্থীরা। যেখানে তাদের দাবি,
করোনা মহামারীর বাহানায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় অযৌক্তিকভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে। অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে।
অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে করোনা টিকার আওতায় আনার দাবি কথা বলেন শিক্ষার্থীরা।
করোনা মহামারীর দোহাই দিয়ে হাজার হাজার শিক্ষার্থীকে জিম্মি করা হচ্ছে। সরকার পরিকল্পিত ভাবে এই প্রজন্মকে অসার ও মেরুদণ্ডহীন করে তুলছে। অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না খুলে দিলে আমার কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা দেয়ার কথাও জানান এসব শিক্ষার্থীরা।

আপনার মতামত লিখুন :