সিসি ক্যামেরা ঢেকে চার মাদরাসা শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পেটালেন শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:২৪ PM, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাদারীপুরের শাহ মাদার দরগা শরীফ মাদ্রাসার শিক্ষক বেলাল হোসাইন চার শিক্ষার্থীকে সিসি ক্যামেরা লুঙ্গি দিয়ে ঢেকে বেধড়ক পিটিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) আসর নামাজের পর চার শিক্ষার্থীকে মারধর করেন শিক্ষক বেলাল হোসাইন। এসময় দুই শিক্ষার্থী পালিয়ে বাড়িতে চলে যায়। মারধরের শিকার দুই শিক্ষার্থীর বাড়ি ডাসার উপজেলার বালিগ্রাম ইউনিয়নের পশ্চিম বোথলা গ্রামে। তার হলেন ওই গ্রামের শাহাদাৎ বেপারীর ছেলে আসিফ বেপারী (১০), আয়নাল বেপারীর ছেলে সাকিব মোল্লা (১২)। একই উপজেলার রাজার চরের রাজু ও কালকিনি উপজেলার খাসের হাট গ্রামের সাইফুল। তারা সবাই মাদ্রাসার প্রথম জামাতের শিক্ষার্থী।

নির্যাতনের শিকার আসিফ বেপারী বলেন, অহেতুক হুজুর আমাকে মেরেছেন। কুচকিতে ঘাঁ হওয়ায় আমি অসুস্থ ছিলাম। আসরের নামাজ পড়তে পারিনি। তাই হুজুর সিসি ক্যামেরা লুঙ্গি দিয়ে ঢেকে আমিসহ চারজনকে বেধড়ক মারধর করে। আমার হাত ও পিঠে দাগ হয়ে গেছে। হুজুর আমাদের হুমকি দেয় যে আমাদের মতো দুই একজন মেরে দরকার হয় সে জেলে যাবে।

এ ঘটনায় আসিফ বেপারীর পিতা শাহাদাৎ হোসেন বলেন, এভাবে যদি মাদ্রাসায় ছাত্রদের মারধরের শিকার হতে হয় তাহলে মাদ্রাসায় আর আমাদের ছেলে মেয়েদের ভর্তি করবো না।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সাধারাণ সম্পাদক মো. আল আমিন বলেন, এটা একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা, অভিযুক্ত শিক্ষক(বেলাল হোসাইন) বর্তমানে পলাতক রয়েছ।

আপনার মতামত লিখুন :